আটলান্টায় প্রোগ্রেসিভ ফোরামের বর্ষবরণ

গত শনিবার মেট্রো আটলান্টার লরেন্সভিল এলাকায় আয়োজিত অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের আহ্বায়ক ইলা চন্দ।

শোভাযাত্রা, চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, মুখোশ তৈরি, গান, কবিতা ও আলোচনা সভাসহ নানা অনুষ্ঠানের বিভিন্ন পর্ব সঞ্চালনা করেন কাকলি বিশ্বাস, মোরশেদুল হাকিম শুভ্র ও নাসির উদ্দিন।

অনুষ্ঠানের শুরুতে ইলা চন্দ উপস্থিত সকলকে বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা জানিয়ে প্রোগ্রেসিভ ফোরাম সম্পর্কে আলোকপাত করেন। তিনি দেশে এবং প্রবাসে বাঙালি সমাজে ও মানসে সাম্প্রদায়িক ও বর্ণগত বিভেদ বিস্তার এবং নারীর প্রতি সহিংসতা রোধে কার্যকরী গণসচেতনতা তৈরিতে এ সংগঠনের প্রয়োজনীয়তা ও ভূমিকা তুলে ধরেন।

নতুন বছরকে স্বাগত জানিয়ে উদ্বোধনী সঙ্গীত পরিবেশন করেন সংগঠনের শিল্পী স্নিগ্ধা দত্ত, রুবিনা সম্পা, কাকলি বিশ্বাস, নুরবাস সাকাবা, অনিলা পারমিতা, নুসরাত সিহাব ও হাসিনা আক্তার। তবলায় ছিলেন অভিষেক শ্যাম। এছাড়া গান পরিবেশন করেন ‘কাহন’ ব্যান্ড, শিল্পী চন্দ্রশেখর দত্ত ও গোলাম মহিউদ্দিন।
শিশুদেরকে বাংলা লিপি শেখানোর আসরের আয়োজন ছিলো অনুষ্ঠানে। মুখোশ তৈরি করা হয় পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে। কবিতা আবৃত্তি করেন সোহেল আহমেদ, কাকলি বিশ্বাস ও ইলা চন্দ।

আলোচনা পর্বে অংশ নেন মুর্শেদুল হাকিম শুভ্র, নাসির উদ্দিন, আটলান্টা সঙ্গীত বিদ্যালয়ের পরিচালক চন্দ্রশেখর দত্ত, গোলাম মহিউদ্দিন মুহিত, কমিউনিটি নেতা মোস্তফা জাহিদ টিটু ও কবি শ্যাম চন্দ।

অনুষ্ঠানের শেষ পর্বে নুরবাস সকাবার পরিচালনায় শিশু-কিশোরদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।
বর্ষবরণের শোভাযাত্রার প্ল্যাকার্ড ও ফেস্টুন নির্মাণে সহযোগিতা করেন অনিলা। জয়িতা সহযোগিতা করেন মুখোশ তৈরিতে। এছাড়া মঞ্চসজ্জায় ছিলেন গ্রাফিক্স ডিজাইনার সোহেল আহমেদ।

অনুষ্ঠান শেষে তামান্না হোসেন, মমতাজ বেগম ও রুবিনা শম্পার তত্বাবধানে আগতদেরকে আপ্যায়িত করা হয়।