৩০০ বছরে ‘বিলুপ্ত হবে’ হাতি, ‘রয়ে যাবে’ গরু

আগামী দুই থেকে তিনশ বছরের মাঝে গরুর চেয়ে বড় সকল স্থলচর প্রাণী বিলুপ্ত হয়ে যেতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন গবেষকরা। বিলুপ্ত হয়ে যেতে পারে বর্তমানের বৃহত্তম স্থলচর প্রাণী হাতিও।

২০ এপ্রিল, শুক্রবার প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট ম্যাশেবলের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা গেছে।

১৮০ কোটি বছর আগে থেকে মানুষ শিকার করে বিভিন্ন স্থলচর প্রাণীর মাংস খাওয়া শুরু করে। সে সময় থেকেই মানুষের হাতে মারা পড়ছে বড় প্রাণীগুলো। এসব প্রাণীর বিলুপ্তির পেছনেও তাই মানুষকেই দায়ী করেন গবেষকরা। গত ১৯ এপ্রিল সায়েন্স জার্নালে প্রকাশিত এক গবেষণা প্রতিবেদনে এ তথ্য উল্লেখ করা হয়েছে।

গবেষণাটির প্রধান লেখক ফেলিসা স্মিথ ইউনিভার্সিটি অব মেক্সিকোর জীববিজ্ঞানের একজন অধ্যাপক। তিনি জানান, মানুষের কারণেই বিলুপ্ত হয় এসব প্রাণী। একদিকে মানুষ তাদেরকে মাংসের জন্য শিকার করে, অন্যদিকে পরিবেশগত পরিবর্তনের কারণে তারা অন্য এলাকায় গিয়ে বাস করতে পারে না।

ফেলিসা স্মিথ এবং তার সহকর্মীরা সাড়ে ছয় কোটি বছরের জীবাশ্ম নিয়ে গবেষণা করেন। তারা দেখেন, প্রতিটি মহাদেশেই মানুষের উপস্থিতির কারণে বড় আকারের স্থলচর প্রাণী কমে এসেছে।

বর্তমানে শুধু মাংস নয়, অন্যান্য কারণেও বড় আকারের প্রাণী শিকার করে চলেছে মানুষ। কিছুদিন আগেই আফ্রিকার নর্দার্ন হোয়াইট প্রজাতির শেষ পুরুষ গণ্ডারটি মারা গেছে। জিরাফও রয়েছে বিলুপ্তপ্রায় প্রাণীর তালিকায়। ফেলিসা স্মিথ বলেন, বিলুপ্তপ্রায় প্রাণীগুলো আগামী ২০০ বা ৩০০ বছরের মাঝে পৃথিবী থেকে বিলুপ্ত হয়ে যেতে পারে। ফলে গরুর চাইতে বড় কোনো প্রাণীই আর থাকবে না পৃথিবীতে।

গরু কেন টিকে থাকবে? এর উত্তর হলো, গরুর বিলুপ্ত হবার কোনো সম্ভাবনাই নেই। প্রচুর মানুষ গরুর মাংস এবং দুধের ওপর নির্ভরশীল। গৃহপালিত হওয়ার কারণে এ প্রাণীটি টিকে থাকবে কয়েকশ বছর পরেও।